বাংলায় সর্বপ্রথম, সর্ববৃহৎ ও সর্বাধিক জনপ্রিয় প্রশ্ন-উত্তরভিত্তিক ও সমস্যা সমাধানের উন্মুক্ত কমিউনিটি "হেল্পফুল হাব" এ আপনাকে স্বাগত, এখানে আপনি যে কোনো প্রশ্ন করে উত্তর নিতে পারবেন একদম বিনামূল্যে এবং কোনো প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানা থাকলে তা প্রদান করতে পারবেন। রেজিস্ট্রেশান না করেই অংশগ্রহণ করতে পারবেন তবে, সর্বোচ্চ সুবিধার জন্য বিনামূল্যে রেজিস্ট্রেশান করুন!

> বাংলা ভাষায় সর্বপ্রথম সম্পূর্ণ প্রশ্ন-উত্তরভিত্তিক এবং সমস্যা সমাধানের উন্মুক্ত কমিউনিটি "হেল্পফুল হাব" এ আপনাকে স্বাগত, এখানে আপনি যে কোনো প্রশ্ন করে উত্তর নিতে পারবেন এবং কোনো প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানা থাকলে তা প্রদান করতে পারবেন।

Welcome to Helpful Hub, where you can ask questions and receive answers from other members of the community.

14.5k টি প্রশ্ন

16.1k টি উত্তর

5.7k টি মন্তব্য

5.8k জন নিবন্ধিত

0 টি ভোট
470 বার প্রদর্শিত
রাতে যদি ২-১ ঘন্টা কম ঘুম হয় তাহলে সেই ঘুম কি দুপুরে ঘুমিয়ে পূরণ করা যায়? আর এই প্রশ্নগুলোর বিজ্ঞানসম্মত উওর চাই কেউ মন গড়া কথা বলে আমাকে বিপদে ফেলবেন না। কারন এই ঘুমের সময় বাদ দিয়ে আমার রুটিন তৈরি হবে।
"ডাক্তার ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Junior User (56 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন

3 উত্তর

+1 টি ভোট
দুপুরে ঘুমাতে ডাক্তাররা বারণ করেন। অসুস্থ লোক বাদে সুস্থ মানুষের দুপুরে বা আসরের পরের সময়টাতে ঘুমানো অনুচিত। একান্ত নিরূপায় হয়ে থাকলে অন্য কথা। ১৭ বছরের কিশোরের ৬- ৬.৫ ঘন্টা ঘুমানো উচিৎ। কোনক্রমে ৭ ঘন্টার বেশী নয়। ২০-২১ বছরের পর থেকে ৮ ঘন্টা ঘুমানো উচিৎ।

 

 

Signature:

"সৎ কাজ করার চেয়ে সৎ সঙ্গ অধিক উত্তম।"
উত্তর প্রদান করেছেন Expert Senior User (6.3k পয়েন্ট)
+1 টি ভোট
আপনি বলেছেন বিজ্ঞানসম্মত উত্তর চান। আপনাকে একটি কথা মনে রাখতে হবে বিজ্ঞান প্রতিনিয়ত গবেষনা করছে এবং একেক সময় একেক রকম তথ্য দিচ্ছে। তাতে মানুষ নিজেই কিছুটা বিভ্রান্ত হচ্ছে। যেমন এক সময় বলতো দুপুরে ঘুমানো আত্মহত্যার সমান। তবে এটা এখন ভিত্তিহীন। গবেষনায় দেখা গেছে। একজন নারী-পুরুষের প্রতিদিন অন্তত ৭ থেকে ৮ ঘন্টা ঘুমের প্রয়োজন। তাই আপনার বয়স হিসাবে ধরে নিচ্ছি আপনার ৭ ঘন্টা ঘুমালেই যথেষ্ট হবে। তবে যদি কেউ কম ঘুমাতে অভ্যস্ত হয় বা প্রতিদিন সর্বোচ্চ ৪ ঘন্টার বেশি ঘুমাতে না পারে, আর এ অবস্থা যদি দীর্ঘমেয়াদী চলতে থাকে তবে শরীরের রোগ-প্রতিরোধ ব্যবস্থা (ইম্যিউন সিস্টেম) ৫০ ভাগ ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে। ফলে শরীরে ছোটখাটো নানা রোগ লেগেই থাকে। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা অটুট রাখতে হলে প্রতিদিন কমপক্ষে ৭/৮ ঘন্টা ঘুমাতে হবে। এবং গবেষনায় আরও দেখা গেছে প্রতিদিন পর্যাপ্ত ঘুমানো গেলে শরীরে, সর্বোচ্চ ‘ন্যাচারাল কিলার সেল’ তৈরি হয়, যা কিনা ভাইরাস-এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে সাহায্য করে। কিন্তু সবচেয়ে আশার কথা হচ্ছে এই ন্যাচারাল কিলার সেল কখনো নিজ শরীরকে আক্রমণ করে না। তাই বলবো অতিরিক্ত ঘুমানো যেমন ভালো না তেমন কম ঘুমও শরীরের জন্য ভালো নয়। তবে মনে রাখবেন দিনের বেলা বেশি ঘুমানো ভালো নয়। এবং অনিয়মিত ঘুমও শরীরের জন্য ভালো নয়। তবে সব কিছু বিশ্লেষন করে আমার মতামত হচ্ছে আপনি রাতে ২/১ ঘন্টা কম ঘুমিয়ে তা যদি দুপুরে ১-১.৫ ঘণ্টা ঘুমের মাধ্যমে পুষিয়ে নিতে পারেন তাতে সমস্যা হওয়ার কথা না।

আমি কোন ডাক্তার নই। তবে গুগল এর তথ্যের উপর ভিত্তি করে ও নিজের অভিজ্ঞতা থেকে বিশ্লেষন করে উত্তর দিলাম।
উত্তর প্রদান করেছেন Senior User (185 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
vai apni 17 years means apni student so apni rat 12 tai ghumaben ar 7 tai uthben or 11-6 jeta subidha hoi. r dupure ek ghonta ghumaben.jodi tired lage .actually gum ekjon manuser jibone khub important r seta obossoy eky time e hote hobe. r ekjon manuser 8 ghonta sound sleep ghum dorkar na hole memory problem hobe.
উত্তর প্রদান করেছেন Expert Senior User (692 পয়েন্ট)

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর
23 মে 2016 "ডাক্তার ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন বাপ্পি
0 টি ভোট
1 উত্তর
0 টি ভোট
1 উত্তর
08 মে 2013 "ডাক্তার ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাত সদস্য
0 টি ভোট
1 উত্তর
0 টি ভোট
0 টি উত্তর
19 ডিসেম্বর 2013 "অন্যান্য ও বিভাগহীন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন মুক্তাদির
0 টি ভোট
1 উত্তর
12 অগাস্ট 2016 "ডাক্তার ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাত সদস্য
0 টি ভোট
1 উত্তর
02 অগাস্ট 2016 "ডাক্তার ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাত সদস্য
0 টি ভোট
1 উত্তর
25 জানুয়ারি 2015 "ডাক্তার ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন fahim rubel New User (17 পয়েন্ট)

 

(হেল্পফুল হাব এ রয়েছে এক বিশাল প্রশ্নোত্তর ভান্ডার। তাই নতুন প্রশ্ন করার পূর্বে একটু সার্চ করে খুঁজে দেখুন নিচের বক্স থেকে)

(হেল্পফুল হাব সকলের জন্য উন্মুক্ত তাই এখানে প্রকাশিত প্রশ্নোত্তর, মন্তব্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর)

...