বাংলায় সর্বপ্রথম, সর্ববৃহৎ ও সর্বাধিক জনপ্রিয় প্রশ্ন-উত্তরভিত্তিক ও সমস্যা সমাধানের উন্মুক্ত কমিউনিটি "হেল্পফুল হাব" এ আপনাকে স্বাগত, এখানে আপনি যে কোনো প্রশ্ন করে উত্তর নিতে পারবেন একদম বিনামূল্যে এবং কোনো প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানা থাকলে তা প্রদান করতে পারবেন। রেজিস্ট্রেশান না করেই অংশগ্রহণ করতে পারবেন তবে, সর্বোচ্চ সুবিধার জন্য বিনামূল্যে রেজিস্ট্রেশান করুন!

> বাংলায় সর্বপ্রথম, সর্ববৃহৎ ও সর্বাধিক জনপ্রিয় প্রশ্ন-উত্তরভিত্তিক এবং সমস্যা সমাধানের উন্মুক্ত কমিউনিটি "হেল্পফুল হাব" এ আপনাকে স্বাগত, এখানে আপনি যে কোনো প্রশ্ন করে উত্তর নিতে পারবেন একদম বিনামূল্যে এবং কোনো প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানা থাকলে তা প্রদান করতে পারবেন।

Welcome to Helpful Hub, where you can ask questions and receive answers from other members of the community.

13,900 টি প্রশ্ন

15,602 টি উত্তর

5,480 টি মন্তব্য

5,312 জন নিবন্ধিত

39 Online
1 Member And 38 Guest
Members present at the site
Today Visits : 10817
Yesterday Visits : 13474
All Visits : 10681103

মামাতো ও ফুপাতো ভাই-বোনের বিয়ে হলে কোনো সমস্যা হবে কী?

+1 টি ভোট
280 বার প্রদর্শিত


02 জানুয়ারি "শিক্ষা ও বই" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন বাপ্পি

4 উত্তর

+1 টি ভোট
আল্লাহ তায়ালা কুরআন মজীদে বলেন : তোমাদের জন্য হারাম করা হয়েছে তোমাদের মাতা,কন্যা, বোন, ফুফু, খালা, ভাইয়ের মেয়ে, বোনের মেয়ে, দুধমাতা, দুধ বোন, শাশুড়ী, দৈহিক সম্পর্ক স্থাপিত হয়েছে এমন স্ত্রীর অন্য ঘরের যে কন্যা তোমার লালন পালনে আছে; যদি তাদের সাথে দৈহিক সম্পর্ক স্থাপিত না হয় তাহলে, তাকে বিবাহ করাতে দোষ নেই।এ ছাড়া তোমাদের ঐরসজাত পুত্রের স্ত্রী, ও একত্রে দুই সহদরা বোনকে বিবাহাধীনে রাখা। তবে, আয়াত নাযিলের পুর্বে যা হয়ে গেছে তা আলাদা। নিশ্চয় আল্লাহ তাআলা ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু। আর (শরীয়ত সম্মত পন্থায় প্রাপ্ত) ক্রীতদাসী ব্যতিত বিবাহিতা (যে অন্যের বিবাহাধীনে আছে) মহিলাদেরকেও তোমাদের জন্য হারাম করা হয়েছে। এদের বাইরে যে কোন (মুসলিম বা আহলে কিতাব) মহিলাকে তোমাদের জন্য বিবাহ করা বৈধ করা হয়েছে। এটা আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে নির্দিষ্ট। (সুরা নিসা: ২৩-২৪) (ক)বংশগত কারণে নিষিদ্ধ: তারা হচ্ছেন- (১) মাতা {দুধ মাতা এবং তার সন্তান দের, যারা তার দুগ্ধ পান করেছে } (২) দাদী (৩) নানী (৪) নিজের মেয়ে, ছেলের মেয়ে, মেয়ের মেয়ে যত নিচেই যাক না কেন।(৫) আপন বোন, বৈমাত্রেয় বোন ও বৈপিত্রেয় বোন। (৬) নিজের ফুফু, পিতা, মাতা, দাদা, দাদী, নানা ও নানীর ফুফু। (৭) নিজের খালা, পিতা, মাতা, দাদা, দাদী, নানা ও নানীর খালা। (৮) আপন ভাই, বৈমাত্রেয় ভাই ও বৈপিত্রেয় ভাই ও তাদের অধঃতন ছেলেদের কন্যা। (৯) আপন বোন, বৈমাত্রেয় বোন ও বৈপিত্রেয় বোন ও তাদের অধঃতন মেয়েদের কন্যা। খ. দুগ্ধ সম্বন্ধীয় কারণে নিষিদ্ধ: (১) বংশগত কারণে যাদেরকে বিবাহ করা নিষিদ্ধ দুগ্ধ সম্বন্ধের কারণেও তারা নিষিদ্ধ। তবে, শর্ত হচ্ছে- গ. বৈবাহিক সম্বন্ধের কারণে নিষিদ্ধ: (১) পিতা, দাদা ও নানা (যতই উপরে যাক না কেন) যাদেরকে বিবাহ করেছেন। (২) কোন পুরুষের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার পর দৈহিক সম্পর্ক স্থাপিত হোক বা না হোক উক্ত পুরুষের পুত্র-পোত্র বা প্রপোত্রের সাথে মহিলার বিবাহ নিষিদ্ধ। (৩) কোন পুরুষের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার পর দৈহিক সম্পর্ক স্থাপিত হোক বা না হোক উক্ত পুরুষের পিতা-দাদা বা নানার সাথে মহিলার বিবাহ নিষিদ্ধ। (৪) শাশুড়ী। মহিলার সাথে বিবাহ হলেই তার মাতা ও দাদী বা নানী হারাম হয়ে যাবে। দৈহিক সম্পর্ক স্থাপিত হোক বা না হোক। (৫) স্ত্রীর সাথে দৈহিক সম্পর্ক স্থাপিত হলেই তার কন্যা, তার পুত্রের কন্যা ইত্যদি হারাম হয়ে যাবে। ঘ. সাময়িক ভাবে নিষিদ্ধ মহিলা: (১) কোন মহিলাকে বিবাহ করলেই তার আপন বোন, ফুফু, খালাকে বিবাহ করা হারাম গণ্য হবে। তবে, তাকে যখন তালাক দিয়ে দেবে কিংবা, স্বামী মারা যাবে এবং সে ইদ্দত শেষ করবে, তখন তাকে সে বিবাহ করতে পারবে। (২) যে মহিলা অন্যের বিবাহাধীনে ছিল। তাকে স্বামী তালাক দিয়েছে কিংবা মারা গেছে এবং সে ইদ্দত পালন করছে; এমতাবস্থায় তাকে বিবাহ করা নিষিদ্ধ। ইদ্দত শেষ হয়ে গেলেই বিবাহ করতে পারবে। আল্লাহ তায়ালা উপরোক্ত আয়াতে যাদের সাথে বিবাহ করা নিষিদ্ধ সকলের কথাই বলে দিয়েছেন। খালাতো,মামাতো,ফুফাতো বা চাচাতো বোন তাদের মধ্যকার কেউ নন। অতএব, তাদেরকে বিবাহ করা বৈধ। এমনকি, চাচা মারা গেলে বা তালাক দিয়ে দিলে চাচীকে বিবাহ করার বৈধতাও ইসলাম দিয়েছে।

 

 

Signature:

যে মন কর্তব্যরত নয় সে মন অনুপভোগ্য
03 জানুয়ারি উত্তর প্রদান করেছেন আলী সোহান Senior User (264 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
না কোনো সমস্যা নাই
03 জানুয়ারি উত্তর প্রদান করেছেন Rx Boy
কিন্তু এটা শুনতে কেমন জানি লাগে।আমার আত্মীয়দের মধ্যে বিবাহর মত এত কঠিন জিনিসে আবদ্ধ হওয়া উচিত না।
0 টি ভোট
সমস্যা নেই।তবু নিজের আত্মীয়দের বিয়ে না করাই ভাল জেনেটিক ভেরিয়েশন ঘটে না

 

 

Signature:

আমার ব্লগ  <a herf='http://bdtipstech.blogspot.com' >bd tech blog</a> ভিজিট করতে ভুলবেন না
05 জানুয়ারি উত্তর প্রদান করেছেন rajan66 Junior User (81 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
কেউ কেউ বলে থাকে যে, নিকট-আত্মীয়ের মধ্যে বিয়ে হলে সন্তান দুর্বল হয় কিন্তু এর কোনো বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই যা ১০০% সত্য। আমি দুইটা দম্পতিকে দেখেছি যেগুলোর একটা ছিল মামাতো-ফুপাতো সম্পর্কের আর অন্যটা ছিল খালাতো-খালাতো সম্পর্কের। তাদের সব সন্তানই সুস্থ ও স্বাভাবিক হয়েছে।

এখন প্রতিবন্ধী সন্তান কেন হয় এটা সম্বন্ধে একজন পণ্ডিত ব্যক্তির কাছ থেকে জেনেছিলাম যে, এটা হয় বিভিন্ন নিষিদ্ধ সময়ে সহবাস করলে। আর বিয়ের আগে রক্ত পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয়ে নিন যে, দুজনেরই রক্তের গ্রুপ যেন পজিটিভ বা নেগেটিভ হয়। একজনের পজিটিভ আর অন্যজনের নেগেটিভ হলে সেই দম্পতির বাচ্চা মারা যায় বা প্রতিবন্ধী হয়।

 

 

Signature:

"সৎ কাজ করার চেয়ে সৎ সঙ্গ অধিক উত্তম।"
07 জানুয়ারি উত্তর প্রদান করেছেন ju1111 Expert Senior User (6,103 পয়েন্ট)

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+1 টি ভোট
3 টি উত্তর
+2 টি ভোট
4 টি উত্তর
0 টি ভোট
3 টি উত্তর
25 ডিসেম্বর 2015 "আইন-কানুন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন নাহিদ
+1 টি ভোট
1 উত্তর
0 টি ভোট
0 টি উত্তর
09 ফেব্রুয়ারি "সমাজ ও সম্পর্ক" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অধরা
0 টি ভোট
1 উত্তর
02 ডিসেম্বর 2016 "সমাজ ও সম্পর্ক" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন নিশাত ইয়াসমিন
+1 টি ভোট
2 টি উত্তর

 

(হেল্পফুল হাব এ রয়েছে এক বিশাল প্রশ্নোত্তর ভান্ডার। তাই নতুন প্রশ্ন করার পূর্বে একটু সার্চ করে খুঁজে দেখুন নিচের বক্স থেকে)

(হেল্পফুল হাব সকলের জন্য উন্মুক্ত তাই এখানে প্রকাশিত প্রশ্নোত্তর, মন্তব্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর)

...