বাংলায় সর্বপ্রথম, সর্ববৃহৎ ও সর্বাধিক জনপ্রিয় প্রশ্ন-উত্তরভিত্তিক ও সমস্যা সমাধানের উন্মুক্ত কমিউনিটি "হেল্পফুল হাব" এ আপনাকে স্বাগত, এখানে আপনি যে কোনো প্রশ্ন করে উত্তর নিতে পারবেন একদম বিনামূল্যে এবং কোনো প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানা থাকলে তা প্রদান করতে পারবেন। রেজিস্ট্রেশান না করেই অংশগ্রহণ করতে পারবেন তবে, সর্বোচ্চ সুবিধার জন্য বিনামূল্যে রেজিস্ট্রেশান করুন!

> বাংলায় সর্বপ্রথম, সর্ববৃহৎ ও সর্বাধিক জনপ্রিয় প্রশ্ন-উত্তরভিত্তিক এবং সমস্যা সমাধানের উন্মুক্ত কমিউনিটি "হেল্পফুল হাব" এ আপনাকে স্বাগত, এখানে আপনি যে কোনো প্রশ্ন করে উত্তর নিতে পারবেন একদম বিনামূল্যে এবং কোনো প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানা থাকলে তা প্রদান করতে পারবেন।

Welcome to Helpful Hub, where you can ask questions and receive answers from other members of the community.

14,084 টি প্রশ্ন

15,772 টি উত্তর

5,540 টি মন্তব্য

5,672 জন নিবন্ধিত

15 Online
0 Member And 15 Guest
Today Visits : 14520
Yesterday Visits : 14721
All Visits : 11647337

মুখ খুব খুব তৈলাক্ত,কিভাবে মুক্তি পাব

0 টি ভোট
195 বার প্রদর্শিত
মুখ খুব খুব তৈলাক্ত,কিভাবে মুক্তি পাব,সাথে সাথে মাথাও খুব তৈলাক্ত ও খুশকি
19 জুলাই 2016 "সৌন্দর্য ও রূপচর্চা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাত সদস্য
সেইম প্রবলেম আমার ও।তবে মুক্তির উপায় পাইনি খুঁজে।

2 উত্তর

0 টি ভোট
ত্বকের তৈলাক্ততা দূর করতে শসা ও লেবুর রস ব্যবহার করুন। একটি বাটিতে ১ টেবিল চামচ শসার রস নিয়ে এতে ১ টেবিল চামচ লেবুর রস ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর এই মিশ্রণটি একটি তুলোর বলের সাহায্যে পুরো ত্বকে ভালো করে লাগিয়ে ৩০ মিনিট রাখুন। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। শসার রস ত্বকের নিচের তেল গ্রন্থি থেকে তেল বের করে তৈলাক্ততা দূর করে। লেবুর রসে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় এটি ব্রণ হবার সম্ভাবনাও কমিয়ে দেয়। সপ্তাহে ২/৩ বার ব্যবহারে ভালো ফল পাওয়া যায়। খুসকি প্রায় সকলেরই সমস্যা । এটা প্রাকৃতিক ভাবে নিরাময়ের জন্য গাছ মেহেদি অথবা লেবুর রস অথবা মসুরের ডাল বিজানু পানি নিয়মিত ব্যবহার করতে পারেন এতে অনেকাংমে খুসকি দুর হবে।

 

 

Signature:

যে মন কর্তব্যরত নয় সে মন অনুপভোগ্য
01 ডিসেম্বর 2016 উত্তর প্রদান করেছেন আলী সোহান Senior User (264 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
মুখের তৈলাক্ত ভাব দূর করতে যা করবেনঃ ১। দিনের শুরুতেই মুখ ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। রাতে যদি ডিপ ক্লিন করে থাকেন ত্বক, তাহলে সকালে পরিষ্কার করুন সাধারণ ফেসওয়াশ দিয়ে। ২। মুখে উষ্ণ পানির ঝাপটা দিন। তারপর ফেসওয়াশ লাগান। ম্যাসেজ করে ধুয়ে তারপর সাধারণ পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। মুখে যেন সাবান লেগে না থাকে। ৩। এবার ১ মগ হালকা উষ্ণ পানির সাথে ১ চামচ লবণ ও লেবুর রস মিশিয়ে নিন। ৪। এই পানি দিয়ে মুখে ধুয়ে ফেলুন ভালো করে পানির ঝাপটা দিয়ে। ৫। চোখ বন্ধ রাখবেন, নাহলে চোখ জ্বলতে পারে। ৬। লবণ পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে মুখ ভালো করে মুছে নিন। যদি চিটচিটে ভাব বেশী মনে হয়, বা অস্বস্তি লাগে, তাহলে মিনিট দশেক পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে মুছে নিন। ৭। মনে রাখবেন , তৈলাক্ত ত্বকের জন্য সাধারণ পানির বদলে ফিল্টার করা পানি বা ফুটানো পানি ব্যবহার করাই ভালো। তৈলাক্ত ত্বকে যা ব্যবহার করবেন না । ৮। তৈলাক্ত ত্বকে খুব বেশী প্রসাধনী ব্যবহার না করাই ভালো, এতে ব্রণের সমস্যা বাড়ে। ৯। ওয়েট টিস্যু ব্যবহার করবেন না তৈলাক্ত ত্বকে, এতে ত্বকের ক্ষতি হয়। ১০। তৈলাক্ত ত্বকে স্ক্রাবার ব্যবহার করবেন না। ১১। দিনের যে কোন সময় ত্বক তৈলাক্ত মনে হয়ে টিস্যু বা রুমাল পানিতে ভিজিয়ে সেটা দিয়ে মুখে মুছে নিন। সুযোগ পেলে বরং ঘষে নিন। ত্বকের বাড়তি তেল নিয়ন্ত্রণে থাকবে। ---কালেক্টেড!!!

 

 

Signature:

পৃথিবীতে সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ আদালত হলো মানুষের বিবেক।
01 ডিসেম্বর 2016 উত্তর প্রদান করেছেন Manik Raj Senior User (147 পয়েন্ট)

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর
0 টি ভোট
1 উত্তর
0 টি ভোট
0 টি উত্তর
0 টি ভোট
1 উত্তর
17 ফেব্রুয়ারি 2014 "ডাক্তার ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাত সদস্য
0 টি ভোট
2 টি উত্তর

 

(হেল্পফুল হাব এ রয়েছে এক বিশাল প্রশ্নোত্তর ভান্ডার। তাই নতুন প্রশ্ন করার পূর্বে একটু সার্চ করে খুঁজে দেখুন নিচের বক্স থেকে)

(হেল্পফুল হাব সকলের জন্য উন্মুক্ত তাই এখানে প্রকাশিত প্রশ্নোত্তর, মন্তব্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর)

...