বাংলায় সর্বপ্রথম, সর্ববৃহৎ ও সর্বাধিক জনপ্রিয় প্রশ্ন-উত্তরভিত্তিক ও সমস্যা সমাধানের উন্মুক্ত কমিউনিটি "হেল্পফুল হাব" এ আপনাকে স্বাগত, এখানে আপনি যে কোনো প্রশ্ন করে উত্তর নিতে পারবেন একদম বিনামূল্যে এবং কোনো প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানা থাকলে তা প্রদান করতে পারবেন। রেজিস্ট্রেশান না করেই অংশগ্রহণ করতে পারবেন তবে, সর্বোচ্চ সুবিধার জন্য বিনামূল্যে রেজিস্ট্রেশান করুন!

> বাংলা ভাষায় সর্বপ্রথম সম্পূর্ণ প্রশ্ন-উত্তরভিত্তিক এবং সমস্যা সমাধানের উন্মুক্ত কমিউনিটি "হেল্পফুল হাব" এ আপনাকে স্বাগত, এখানে আপনি যে কোনো প্রশ্ন করে উত্তর নিতে পারবেন এবং কোনো প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানা থাকলে তা প্রদান করতে পারবেন।

Welcome to Helpful Hub, where you can ask questions and receive answers from other members of the community.

14.5k টি প্রশ্ন

16.1k টি উত্তর

5.7k টি মন্তব্য

5.8k জন নিবন্ধিত

0 টি ভোট
228 বার প্রদর্শিত
আমি একটি জাপানি কম্পানির পক্ষ থেকে ৩ মাসের ট্রেনিং এরে জন্য ভারত যেতে চাই। এ ক্ষেত্রে কোন ধরনের ভিসা লাগবে। আমি কি করে ভিসার আবেদন করব বা পাব। কম্পানীর কোন হেল্প লাগবে কিনা। আামাকে বিস্তারিত বললে অনেক উপকৃত হতাম।
আমি ইতিমধ্যে পাসপোর্টের জন্য আবেদন জমা দিয়েছি। আমার কোন ব্যাংক একাউন্ট নেই। ব্যাংক ক্লিয়ারেন্সের জন্য ব্যাংক একাউন্ট খুলতে হবে কিনা।কোন কোন কাগজ পত্র ঠিক করে রাখতে হবে বা প্রয়োজন হেতে পারে?.......................................

"ভ্রমণ ও স্থান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Junior User (35 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 টি ভোট

ভারতীয় ভিসা নেবার নিয়মাবলী :- 
বাংলাদেশের মধ্যে শুধুমাত্র ঢাকা, খুলনা, সিলেট, রাজশাহী আর চট্রগ্রামে ভারতীয় ভিসার জন্য আবেদন করা যায় । ঢাকাতে মতিঝিল আর গুলশানে আবেদন পত্র জমা নেয় । 
প্রথমে লিংকে প্রবশে করুন এরপর আবেদন পত্র সঠিক নিয়মে পূরন করুন । (এই লিংক মাঝে মাঝে কাজ করে না । ভিতরে ঢুকতে হয় । ) 

১। আবেদনের তারিখে পাসপোর্টের মেয়াদ ছয় মাস বা তার বেশি থাকতে হবে । সঠিক নিয়মে ফর্ম পূরন করতে হবে । আপনার ফর্ম পূরনের সময় একটি তারিখ জানতে চাইবে আপনি কবে ভিসা ফর্ম জমা দিবেন । আপনার সুবিধা মত তারিখ নির্বাচন করুন । 

২। ছবির মাপ ২ ইঞ্চি বাই ২ ইঞ্চি হতে হবে, বেশী পুরানো হলে চলবে না। বর্তমান চোহারা ফুটে উঠতে হবে ! 

২। ব্যাংক থেকে ২০০ ডলার কিংবা তার বেশী পাসপোর্ট এ এন্ডোস করা থাকতে হবে। সাথে সার্টিফিকেট নিতে ভুলবেন না । যদি ডলার এন্ডোস না করেন তবে আপনার গত তিন মাসের ব্যাংক এস্টেটম্যান্ট জমা দিতে হবে। ব্যাংকে কমপক্ষে ২০০০০/= ( বিশ হাজার টাকা ) সমাপনী ব্যালেন্স রেখে ষ্ট্যাটমেন্ট জমা দিবে । 

৩। নাগরিকত্ব সার্টিফিকেট বা ন্যশনাল আইডি কার্ডের ফটোকপি নিবেন । যদি স্কুল , কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় বা অফিসের আইডি থাকে তাও ফটোকপি জমা দিবেন । (একটা মূল কপি নিয়ে যাবেন যদি লাগে তারা নিবে । কাজ শেষে ফেরত দিবে ।) 

৪। আপনি কি করেন তা প্রমানের জন্য যে কোন সার্টিফিকেট নিবেন (ব্যবসা হলে আপনার ট্রেড লাইসন্সের ফটোকপি কিংবা চাকুরী করলে যথাযত পক্ষের থেকে লেটার নিতে হবে। উভয়ক্ষেত্রে ভিজিটিং কার্ড নিবেন) । অফিস থেকে ছুটি মঞ্জুরের অনুমতিপত্র ও জমা দিতে হবে । 

৫। কমিশনার বা চেয়ারম্যানের সনদপত্র হলে চলবে । যে বাড়ির ঠিকানা আপনার পার্সপোটে উল্লেখ করা আছে সেই বাড়ির বিদ্যুৎ, পানি, ফোন, গ্যাস বিলের ফটোকপি জমা দিন । একটা মূল কপি নিয়ে যাবেন যদি লাগে তারা নিবে । কাজ শেষে ফেরত দিবে । 

৬। ট্যুরিষ্ট ভিসা তিন মাসের জন্য প্রদান করা হয় । এটার মেয়াদ কোন ভাবেই বাড়ানো যায় না । 

৭। চিকিৎসা সংক্রান্ত ভিসার জন্য যেতে হলে ডাক্তারের নাম , ভিজিটিং কার্ড, এপয়েন্টম্যান ডেট, রুগীর সকল কাগজপত্র, বাংলাদেশের ডাক্তারের রের্ফাড এর কাগজ জমা দিতে হবে । চিকিৎসা সংক্রান্ত ভিসার মেয়াদ বাড়ানো যায় । 
<br style="box-sizing:

উত্তর প্রদান করেছেন Junior User (36 পয়েন্ট)

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

+1 টি ভোট
2 টি উত্তর
+1 টি ভোট
2 টি উত্তর
0 টি ভোট
3 টি উত্তর

 

(হেল্পফুল হাব এ রয়েছে এক বিশাল প্রশ্নোত্তর ভান্ডার। তাই নতুন প্রশ্ন করার পূর্বে একটু সার্চ করে খুঁজে দেখুন নিচের বক্স থেকে)

(হেল্পফুল হাব সকলের জন্য উন্মুক্ত তাই এখানে প্রকাশিত প্রশ্নোত্তর, মন্তব্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর)

...