বাংলায় সর্বপ্রথম, সর্ববৃহৎ ও সর্বাধিক জনপ্রিয় প্রশ্ন-উত্তরভিত্তিক ও সমস্যা সমাধানের উন্মুক্ত কমিউনিটি "হেল্পফুল হাব" এ আপনাকে স্বাগত, এখানে আপনি যে কোনো প্রশ্ন করে উত্তর নিতে পারবেন একদম বিনামূল্যে এবং কোনো প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানা থাকলে তা প্রদান করতে পারবেন। রেজিস্ট্রেশান না করেই অংশগ্রহণ করতে পারবেন তবে, সর্বোচ্চ সুবিধার জন্য বিনামূল্যে রেজিস্ট্রেশান করুন!

> বাংলা ভাষায় সর্বপ্রথম সম্পূর্ণ প্রশ্ন-উত্তরভিত্তিক এবং সমস্যা সমাধানের উন্মুক্ত কমিউনিটি "হেল্পফুল হাব" এ আপনাকে স্বাগত, এখানে আপনি যে কোনো প্রশ্ন করে উত্তর নিতে পারবেন এবং কোনো প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানা থাকলে তা প্রদান করতে পারবেন।

Welcome to Helpful Hub, where you can ask questions and receive answers from other members of the community.

14.6k টি প্রশ্ন

16.2k টি উত্তর

5.7k টি মন্তব্য

5.9k জন নিবন্ধিত

+2 টি ভোট
747 বার প্রদর্শিত

বিভিন্ন কাজের ব্যাস্ততার কারণে নামাজ পড়া হয় না ।আমি এখন থেকে ৫ ওয়াক্ত নামাজ পড়ার চেষ্টা করব ইনশাল্লাহ।দোয়া করবেন আপনারা সবাই যেন আমি ৫ ওয়াক্ত নামাজ ভালোভাবে পড়তে পারি।এখন আমার প্রশ্ন হচ্ছে যে-শুধু ফরজ নামাজ পড়লে কি নামাজ হবে?সুন্নত নামাজ না পড়লে কি নামাজ হবে না??;অনেক গুনাহ হবে?

"ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন তানভীর

3 উত্তর

+1 টি ভোট

ফরয থেকে মাফ পাবেন কিন্তু সুন্নাত অংশের জন্য জবাবদিহি করতে হবে। পুরো নামায আদায় করা শুরু করে দিন। দোয়া রইল- ফী আমানিল্লাহ।

 

 

Signature:

"সৎ কাজ করার চেয়ে সৎ সঙ্গ অধিক উত্তম।"
উত্তর প্রদান করেছেন Expert Senior User (6.3k পয়েন্ট)

দলীল সহকারে এটার প্রমাণ দিতে পারলে উপকৃত হব।

সুন্নাত ২ রকমঃ সুন্নাতে মুয়াক্কাদাহ ও সুন্নাতে গায়র মুয়াক্কাদাহ। সুন্নাতে মুয়াক্কাদাহ সব মুসলিমের উপর আবশ্যিক আর সুন্নাতে গায়র মুয়াক্কাদাহ একটা এলাকার যেকোন একজন মুসলিম পালন করলে অন্যরা এর থেকে অব্যাহতি পাবেন যেমনঃ জানাযার নামায, শেষ ১০ রোযায় ইতিকাফ করা প্রভৃতি। সুন্নাত নামায সুন্নাতে মুয়াক্কাদাহর অন্তর্ভুক্ত। নবম-দশম শ্রেণী বা তার আগের কোন ক্লাসের ইসলাম শিক্ষা বইয়ে সুন্নাতের ধরণ সম্বন্ধে বলা হয়েছে। আর যে বই থেকে এই তথ্য জেনেছিলাম সেটা অনেক আগের নবম-দশম শ্রেণীর ইসলাম শিক্ষা বইয়ে (সম্ভবত ১৯৯২-৯৩ সালের বই) পেয়েছিলাম। তবে, একথা ঠিক যে, ফরয, ওয়াজিব, সুন্নাত এর যেকোনটা বাদ দিলে তার জন্য জবাবদিহি করতে হবে। আপনি সুন্নাত আদায় করার জন্য আন্তরিকভাবে চেষ্টা করতে থাকুন। আল্লাহ সবচেয়ে বড় বিবেচক। দলীল না দিতে পারায় দুঃখিত। ভাল আলিম-এর কাছ থেকে জেনে নিতে পারেন। তবে আমার বিশ্বাস সেক্ষেত্রেও একই উত্তর পাবেন।

Ju111 কি চাইলো আর কি দিলেন? চাইছে যে উত্তর ১ম দিছিলেন তার দলিল | দলীল থাকে হাদীস আর কুরআনে | সালের বইতে না |

জনাব islamerbani, আপনার আগেও বেশ কিছু উত্তর ও মন্তব্য দেখেছি। উত্তরগুলো ঠিক আছে কিন্তু মন্তব্য গুলো দেখে মনে হয় কিছুটা আক্রমণাত্মক। হয়তো আপনার বলার স্টাইলটাই এরকম। কিন্তু মনে রাখবেন আপনি ইসলামকে রিপ্রেজেন্ট করছেন। আপনি নিজেও ইসলামিক একটা সাইটের এডমিন। তাই অন্যের ভুলটাকে নমনীয়ভাবে বুঝিয়ে বলা উচিৎ এবং তা অত্যান্ত বিনয়ের সাথেই বলা উচিৎ। ইসলাম তো আমাদেরকে এটাই শিক্ষা দিয়েছে তাই নয় কি? এছাড়া আপনি নিজেও অস্বীকার করবেন না যে আমাদের ইসলাম ধর্মের নিয়ম কানুন ইতিমধ্যে বিভক্ত হয়ে গেছে। যেমন হানাফি আর আহলে হাদিস। কিন্তু সব মিলিয়ে আমরা মুসলিম। এবং ভাই ভাই। কিন্তু ভিন্নমতবাদ থাকতে পারে। তবে সেখানে নিজের জ্ঞানকে প্রকাশ করতেই পারেন কিন্তু অন্যকে আক্রমণ করে মন্তব্য করাটা জ্ঞান প্রকাশের মাধ্যম হতে পারে না। বিতর্ক হতেই পারে কিন্তু সেই রকম বিতর্ক শুরু হওয়ার আগেই আপনার বেশ কিছু মন্তব্য দেখে মনে হচ্ছে উক্ত ব্যক্তির সাথে আপনার পূর্বশত্রুতা রয়েছে।
অন্য মন্তব্যে যা গিয়ে সরাসরি উপরের উত্তরটাকেই যদি ধরি তাহলে, উনি উল্লেখ করেছেন যে "দলীল না দিতে পারায় দুঃখিত। ভাল আলিম-এর কাছ থেকে জেনে নিতে পারেন"
উনি কিন্তু একবারো বলেন নাই যে এটাই দলীল।
আমার এই মন্তব্যটুকু একেবারেই প্রশ্নের সাথে অপ্রাসাঙ্গিক এবং অপ্রয়োজনীয়। তাই ভুল হলে ক্ষমা করবেন।

0 টি ভোট

চেষ্টা করুন | প্রথমে ফরজ পড়ছেন ভাল সংবাদ | পরিকল্পনা নিন ১ম সপ্তাহে চেষ্টা করুন ফরজের আগে যে প্রথম সুন্নত গুলো আছে তা পড়তে | তার পরের সপ্তাহে বা পরের মাসে চেষ্টা করুন ফরজের পরের সুন্নত ও পড়তে | আর আল্লাহর কাছে নামাজ পড়ার সুযোগ চান (হে আল্লাহ, আমাকে নামাজ আদায়ের সুযোগ দাও) এভাবে | ইনশাআল্লাহ ঠিক করতে পারবেন ||

উত্তর প্রদান করেছেন Senior User (130 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
আপনার প্রথম কথায় আমার উত্তর হলো,আপনি নামাজকে কোনো সময় বলবেন না কাজ আছে,বরং কাজকে বলবেন নামাজ আছে। তাহলে আল্লাহ আপনার উপর খুশি হবেন। আর জীবনেও সুখী হতে পারবেন ইনশাল্লাহ। আর দ্বিতীয় কথা হল,আপনি যদি সুন্নত না পড়ে শুধু ফরয পড়ে আসেন,তাহলে আপনার নামাজ হবে ঠিকই,কিন্ত সুন্নত না পড়ার কারণে কঠিন শাস্তি হবে। কারণ,সুন্নত হল নবীর তরীকা। এজন্য ফরযের পাশাপাশি সুন্নত টা পড়ার চেষ্টা করবেন।
উত্তর প্রদান করেছেন Junior User (28 পয়েন্ট)

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
2 টি উত্তর
22 জুলাই 2016 "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাত সদস্য
0 টি ভোট
1 উত্তর
0 টি ভোট
1 উত্তর
0 টি ভোট
3 টি উত্তর
0 টি ভোট
1 উত্তর
0 টি ভোট
2 টি উত্তর
0 টি ভোট
1 উত্তর
22 জুন 2016 "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাত সদস্য
+1 টি ভোট
4 টি উত্তর

 

(হেল্পফুল হাব এ রয়েছে এক বিশাল প্রশ্নোত্তর ভান্ডার। তাই নতুন প্রশ্ন করার পূর্বে একটু সার্চ করে খুঁজে দেখুন নিচের বক্স থেকে)

(হেল্পফুল হাব সকলের জন্য উন্মুক্ত তাই এখানে প্রকাশিত প্রশ্নোত্তর, মন্তব্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর)

...