বাংলায় সর্বপ্রথম, সর্ববৃহৎ ও সর্বাধিক জনপ্রিয় প্রশ্ন-উত্তরভিত্তিক ও সমস্যা সমাধানের উন্মুক্ত কমিউনিটি "হেল্পফুল হাব" এ আপনাকে স্বাগত, এখানে আপনি যে কোনো প্রশ্ন করে উত্তর নিতে পারবেন একদম বিনামূল্যে এবং কোনো প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানা থাকলে তা প্রদান করতে পারবেন। রেজিস্ট্রেশান না করেই অংশগ্রহণ করতে পারবেন তবে, সর্বোচ্চ সুবিধার জন্য বিনামূল্যে রেজিস্ট্রেশান করুন!

> বাংলা ভাষায় সর্বপ্রথম সম্পূর্ণ প্রশ্ন-উত্তরভিত্তিক এবং সমস্যা সমাধানের উন্মুক্ত কমিউনিটি "হেল্পফুল হাব" এ আপনাকে স্বাগত, এখানে আপনি যে কোনো প্রশ্ন করে উত্তর নিতে পারবেন এবং কোনো প্রশ্নের সঠিক উত্তর জানা থাকলে তা প্রদান করতে পারবেন।

Welcome to Helpful Hub, where you can ask questions and receive answers from other members of the community.

15.1k টি প্রশ্ন

16.7k টি উত্তর

5.8k টি মন্তব্য

6.5k জন নিবন্ধিত

0 টি ভোট
1.3k বার প্রদর্শিত

নামাজের সময় প্রত্যেক রাকআতে সুরা ফাতিহা অবশ্যই পড়া লাগে। এর সাথে কি অন্যে যে কোন একটা সুরা পড়লেই হয়? নাকি প্রত্যেক রাকআতে সুরা ফাতিহার সাথে আলাদা আলাদা সুরা পড়তে হয়? যেমন আমি চার রাকআত নামাজ পড়তে চাই এতে কি প্রত্যেক রাকআতে সুরা ফাতিহার সাথে যে কোন একটি সুরা প্রত্যেকবার পড়তে পারবো নাকি চার রাকআতের জন্য চার রকম সুরা পড়তে হবে?

"ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন

1 উত্তর

0 টি ভোট

না, চার রাকআত সুন্নত বেতিত সব নামাজে প্রথম দুই রাকআতে সূরা ফাতেহার সাথে দুটি ভিন্ন ভিন্ন সূরা পড়তে হবে। আর চার রাকআত সুন্নত হলে চার রাকাতেই সূরা ফাতিহার সাথে ভিন্ন চারটি সূরা পরতে হয়।

উত্তর প্রদান করেছেন Expert Senior User (1.4k পয়েন্ট)

অনেকেই বলেন সুরা ফাতিহার সাথে যে কোন একটি সুরা বার বার পড়লেই নাকি হয়। ভিন্ন ভিন্ন সুরা পড়ার কথা কোথাও বলা আছে কি? থাকলে জানাবেন। ধন্যবাদ

যে বেশি সূরা জানে না বা একটা সূরা জানে তার ক্ষেত্রে এই নিয়ম প্রযোজ্য নতুন সূরা শেখার আগ পর্যন্ত। অবশ্যই নতুন সুরা শিখতে হবে।

তাহলে আমাকে কয়টি সুরা মুখস্ত করতে হবে? কমপক্ষে?

কমপক্ষে ৪টা হলে কাজ চলবে। তবে ৮টা হলে ভাল হয়। সেইসাথে সূরাগুলো পর্যায়ক্রমে পড়তে হবে এবং আগে যত সংখ্যক আয়াতবিশিষ্ট সূরা পড়া হল তার পরের রাকাতে তার চেয়ে কম বা সমান সংখ্যক আয়াতবিশিষ্ট সূরা পড়তে হবে। সেই সূরায় বেশি আয়াত থাকলে বাড়তি আয়াত বাদ দিতে হবে।

যেমনঃ সূরা ফালাক (৫ আয়াত) পড়লেন তারপরে সুরা নাস পড়তে হবে। কারণ এরপরে আর সুরা নেই। আবার সূরা নাসে আয়াত ১টা বেশি বলে সেক্ষেত্রে ৪ বা ৫ আয়াত পড়তে হবে। সূরা ফালাক পড়লেন, তারপরে সূরা ইখলাস পড়লেন- এভাবে করা ঠিক নয়। যতটুকু জানি সূরা মিলিয়ে পড়া ওয়াজিব।

আমার জানায় ভুল হতে পারে। তবে যতটুকু জানতে পেরেছি তা এরকমই। ভুল হলে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর
12 অক্টোবর 2016 "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Allah Ka Banda Junior User (58 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
2 টি উত্তর
27 এপ্রিল 2013 "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন matobbar Senior User (275 পয়েন্ট)
+1 টি ভোট
1 উত্তর

 

(হেল্পফুল হাব এ রয়েছে এক বিশাল প্রশ্নোত্তর ভান্ডার। তাই নতুন প্রশ্ন করার পূর্বে একটু সার্চ করে খুঁজে দেখুন নিচের বক্স থেকে)

(হেল্পফুল হাব সকলের জন্য উন্মুক্ত তাই এখানে প্রকাশিত প্রশ্নোত্তর, মন্তব্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর)

...